কানাইঘাটে জাহানারা খুনের দায়ে ৩ জনকে আসামী করে মামলা

Published: 2018-02-19 02:32:03

ফাইল ছবি

শশুড় শাশুড়ীকে আদালতে প্রেরণ

কানাইঘাট প্রতিনিধি : কানাইঘাটে স্বামীর ধারালো অস্ত্রের কোপে স্ত্রী জাহানারা নিহত হওয়ার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। গত শনিবার রাতে নিহতের মা সফিনা বেগম বাদী হয়ে ৩ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৩/৪ জনকে আসামী করে এ মামলা দায়ের করেন। থানার মামলা নং (৯) ১৭/২/১৮ইং। মামলার এজহারভূক্ত আসামী নিহত জাহানারা বেগমের শশুড় শাশুড়ীকে গতকাল রোববার পুলিশ আদালতে প্রেরণ করেছে।

উল্লেখ্য, গত শনিবার সকাল ১০টায় উপজেলার সীমান্তবর্তী লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউপির সোনাতনপুঞ্জি গ্রামে স্বামীর ধারালো অস্ত্রের আঘাতে নির্মমভাবে খুন হন জাহানারা বেগম। জাহানারা উপজেলার বড়চতুল ইউপির মালিগ্রামের মৃত খলিল আহমদের মেয়ে। অভাবী সংসারে এক ভাই তিন বোনের মধ্যে সে ছিল সবার ছোট। তার বৃদ্ধ ভিক্ষুক মা সফিনা বেগম জানান, প্রায় দুই বছর পুর্বে পারিবারিকভাবে জাহানারার বিয়ে হয় জৈন্তাপুর উপজেলার সাতারখাই গ্রামের জয়নাল আবেদীনের সাথে। কিন্তু আত্মীয়তার সুযোগে ইব্রাহিম আলী ইমন তাকে নানা প্রলোভন দেখিয়ে সেখান থেকে পালিয়ে নিয়ে বিয়ে করে।

তিনি আরো জানান, জাহানারা বড় খুশি করে ইমনকে বিয়ে করেছিল। কিন্তু সে সুখ পুরণ করতে দেয়নি ঘাতক ইব্রাহিম আলী ইমন। তিনি আরো বলেন তার মেয়েকে তারা পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। পালিয়ে এসে তারা দুজন বিয়ে করায় গ্রেফতারকৃত শশুড় শাশুড়ী কিছুতেই মেনে নিতে পারেনি জাহানারাকে। এ দিকে স্বামীর বিভিন্ন অপরাধ কর্মকান্ডে সে বাধা দেওয়ায় প্রায় তাদের মধ্যে ঝগড়া লেগেই থাকতো বলে জানান তিনি। নিহতের ভাই মানিক আহমদ জানান, এরই মাঝে প্রায় ৩ মাস পূর্বে ডাকাতি একটি মামলায় ইব্রাহিম ইমন জেলে গেলে জাহানারা আশ্রয় নেয় বাবার বাড়িতে।

প্রায় ১৫ দিন পুর্বে সে জেল থেকে ছাড়া পেয়ে বাড়িতে আসলে জাহানারা স্বামীর বাড়িতে যেতে চায়নি। এতে স্বামী ইমন ইব্রাহিম তাকে নিতে শশুড় বাড়িতে আসে। কিন্তু তাদের নির্যাতনের ভয়ে সেদিন জাহানারা মাকে বলেছিল মা ওরা আমাকে নিষ্ঠুর নির্যাতন করে। এতে তারা সবাই জাহানারাকে বুঝিয়ে খুশি মনে ইব্রাহিমের সাথে দিয়ে দেন। এর ৫দিন যেতে না যেতেই জাহানারা স্বামীর হাতে নির্মম ভাবে খুন হওয়ায় গ্রেফতারকৃত শাশুড় শাশুড়ীর জবানবন্দিতে এলাকাবাসীর মনে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। তাদের মতে চাচাত দেবর সিরাজ শ্লীতাহানীর চেষ্টা করলে স্বামী জাহানারাকে খুন করবে কেন? তারা ঘাতক স্বামীর ফাঁসির দাবী জানিয়ে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে তদন্তের জোর দাবী জানান।

 

শেয়ার করুন

Print Friendly and PDF

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •    সিলেটে-পুলিশ ছাত্রদল ধাওয়া পাল্টাধাওয়া, আটক ২০
  •    ৭০ বছরে পদার্পণ করলো আওয়ামী লীগ
  •    সিসিক নির্বাচন : মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে পারেন আরিফুল হক চৌধুরী!
  •    পরিচ্ছন্ন ও অপরাধমুক্ত নগরী গড়তে চাই : ডা. মোয়াজ্জেম
  •    সিলেট মহানগর শিবিরের ঈদ পুনর্মিলনী
  •    সিসিক নির্বাচন : ১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাবেদের সমর্থনে সভা
  •    সুনামগঞ্জের জাহাঙ্গীর নগরে সড়ক দূর্ঘটনায় বৃদ্ধার মৃত্যু
  •    ওসমানীনগরে বন্যার্তদের পাশে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ
  •    কোম্পানীগঞ্জে দাওয়াত খেতে এসে যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু
  •    চুনারুঘাটে যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার
  •    শিবগঞ্জে স্কুলছাত্র হত্যায় গ্রেপ্তার ৭
  •    বার কাউন্সিলের এডভোকেটশীপ লিখিত পরীক্ষার প্রস্তুতি বিষয়ক কর্মশালা
  •    বর্ষা মৌসুমে প্রাথমিক বিদ্যালয় যাওয়া থেকে বঞ্চিত হাওর পাড়ের শিক্ষার্থীরা
  •    কানাইঘাটে ৩’শ বোতল ফেন্সিডিলসহ গ্রেফতার ৩
  •    জগন্নাথপুরে কিশোর নির্যাতনের অভিযোগ, মামলায় ফাসানো হলো ১১ জনকে
  • সাম্প্রতিক সিলেট খবর

  •   সিলেটে-পুলিশ ছাত্রদল ধাওয়া পাল্টাধাওয়া, আটক ২০
  •   সিলেট মহানগর শিবিরের ঈদ পুনর্মিলনী
  •   সুনামগঞ্জের জাহাঙ্গীর নগরে সড়ক দূর্ঘটনায় বৃদ্ধার মৃত্যু
  •   ওসমানীনগরে বন্যার্তদের পাশে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ
  •   কোম্পানীগঞ্জে দাওয়াত খেতে এসে যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু
  •   চুনারুঘাটে যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার
  •   শিবগঞ্জে স্কুলছাত্র হত্যায় গ্রেপ্তার ৭
  •   কানাইঘাটে ৩’শ বোতল ফেন্সিডিলসহ গ্রেফতার ৩
  •   জগন্নাথপুরে কিশোর নির্যাতনের অভিযোগ, মামলায় ফাসানো হলো ১১ জনকে
  •   মহানগর ছাত্র জমিয়তের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত
  •   রাজা ম্যানশন ব্যবসায়ী সমিতির ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত
  •   পবিত্র ওমরাহ পালন শেষে দেশে ফিরলেন চেয়ারম্যান আশফাক
  •   সুনামগঞ্জে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের বাঁধা
  •   দক্ষিণ সুরমার জৈনপুরের রাস্তায় প্রতিবন্ধকতার অভিযোগ
  •   শ্রেষ্ঠ সমবায়ী নির্বাচিত হলেন বালাগঞ্জের চেয়ারম্যান আনহার মিয়া